সাকিব রশিদের দুর্দান্ত অল রাউন্ড পারফর্ম্যান্সে ফাইনালে হায়দ্রাবাদ

সাকিব রশিদের দুর্দান্ত অল রাউন্ড পারফর্ম্যান্সে ফাইনালে হায়দ্রাবাদ
Loading...

সাকিব রশিদের দুর্দান্ত- সাকিব এবং রশিদ খানের অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে কলকাতাকে রানে হারিয়ে ফাইনালে চলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ভাল সাকিব এবং রশিদের ব্যাটিং এ ভাল সংগ্রহ পায় হায়দ্রাবাদ, মাঝে দলের প্রয়োজন বুঝে ব্যাটিং করলেন সাকিব আল হাসান। শেষে ব্যাটে রীতিমতো ঝড় তুললেন রশিদ খান। তার আগে দুই ওপেনার ঋদ্ধিমান সাহা আর শেখর ধাওয়ানের অবদান। সবমিলিয়ে ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে কলকাতার সামনে ১৭৫ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যই ছুঁড়ে দিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৭৪ রান তুলে তারা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে কলকাতার ১৯ ওভারে সংগ্রহ ১৫৬ রান ৭ উইকেট , সিদ্ধার্থ কৌলের বলে ২৩ রান অরে আউট হয় নারিন, এরপর ভয়ঙ্কর রানা সাকিবের ওভারে রান আউট হয়ে ১৬ বলে ২২ রানের ইনিংস খেলে ফিরে যান। একাদশ ওভারের প্রথম বলে উথাপ্পাকে মাত্র ২ রানে দুর্দান্ত ভাবে বোল্ড করে ফেরত পাঠান রশিদ খান, ১২ তম ওভারের শেষ বলে কার্তিককে ৮ রানের মাথায় ক্লিন বোল্ড করে ফেরত পাঠান আমাদের সাকিব, ১৩ তম ওভারে রশিদ খানের বলে এলবি ডব্লিউ হয়ে আউট হন ভয়ঙ্কর লীন, আউট হওয়ার আগে ৩০ বলে ৪৮ করেন ক্রিস লীন। ১৫ তম ওভারে ধাওয়ানের হাতে কয়েছ দিয়ে ৭ বলে তিন রান করে রশিদের বলে আউট হন এন্ড্রু রাসেল। এরপর চাওলাকে আউট করে সিদ্দার্থ কৌল, শেষ দিকে গিল ২০ বলে ৩০ রান করে কিছুটা চেষ্টা করে কিন্তু শেষে ওভারে ১৯ রান দরকার পরে কলকাতার ব্রাথওয়েট শেষ ওভারে মাত্র ৫ রান এবং ২ উইকেট তুলে নিলে কলকাতার ইনিংস শেষ হয় ১৬১ রান, হায়দ্রাবাদ ১৩ রানে জিতে ফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।

সাকিব তার প্রথম ওভারে দেন ৭ রান, দ্বিতীয় ওভারে দেন ৪ রান এবং অধিনায়ক কার্তিকের উইকেট তুলে নেন, এবং তৃতীয় ওভারে দেন মাত্র ৫ রান। জয় পেতে শেষ ওভারে কলকাতার দরকার ১৯ রান।

এর আগে ইডেন গার্ডেনে ‘কোয়ালিফায়ার টু’ ম্যাচটিতে ওপেনিংয়ে ঋদ্ধিমান আর শেখর ধাওয়ান খারাপ করেননি। ধাওয়ান ২৪ বলে ৩৪ রান করে আউট হন। ঋদ্ধিমান করেন ২৭ বলে ৩৫। এরপর দলের প্রয়োজনে দারুণ একটি ইনিংস খেলেছেন সাকিব। ২৪ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ২৮ রান করে নন-স্ট্রাইকিং এন্ডে থেকেও দুর্ভাগ্যজনক রানআউটের শিকার হন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার।

পরের সময়টায় আরও কয়েকটি উইকেট হারিয়ে বেশ বিপদে পড়ে গিয়েছিল হায়দরাবাদ। দেড়শ করাই কঠিন হয়ে পড়েছিল একটা সময়। শেষদিকে এসে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে সমর্থকদের হতাশা কাটিয়ে দিয়েছেন আফগানিস্তানের রশিদ খান। বোলিংয়ে বিখ্যাত হওয়া এই লেগস্পিনার পুরোদুস্তোর ব্যাটসম্যান হয়ে দলকে চ্যালেঞ্জিং পুঁজি এনে দিয়েছেন। মাত্র ১০ বলে ২ বাউন্ডারি আর ৪ ছক্কায় হার না মানা ৩৪ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। কলকাতার পক্ষে ৪ ওভারে ২৯ রানে ২টি উইকেট নিয়েছেন কুলদ্বীপ যাদব।

আপনার মতামত
Loading...