বিসিএলে খেলতে নেমেই আশরাফুলের ‘ডাক’

বিসিএলে খেলতে নেমেই আশরাফুলের ‘ডাক’
Loading...

আন্তর্জাতিক এবং ফ্রাঞ্জাইজি ক্রিকেট থেকেও নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে চলতি বছরের আগস্টে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার জন্য এখন আর মোহাম্মদ আশরাফুলের সামনে কোনো বাধা নেই। কিন্তু সেই সুযোগটা কি তার মিলবে আর কখনও? নিজেকে তো তিনি সেভাবে প্রমাণই করতে পারছেন না।

জাতীয় লিগে পারফরম্যান্স খুব একটা ভালো ছিল না। যদিও পাঁচ বছর পর আবার বিপিএলে ফেরার সুযোগ পেয়েছেন। খেলবেন চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে। কিন্তু তার আগে আরেকটি ফ্রাঞ্জাইজি টুর্নামেন্ট- বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল) মাঠে গড়ালেও শুরুতে দল পাননি আশরাফুল।

লঙ্গার ভার্সনের এই লিগে আশরাফুলের দল না পাওয়ায় ভক্তরাও অনেক হতাশা প্রকাশ করেন। কিন্তু লিগের তৃতীয় রাউন্ডে এসে ঠিকই দল পেয়ে গেলেন আশরাফুল। খেলার সুযোগ পেলেন ইস্ট জোনের হয়ে।

কিন্তু দুর্ভাগ্য আশরাফুলের। ইস্ট জোনের হয়ে খেলতে নেমে এবারও নিজের নামের প্রতি কোনো সুবিচার করতে পারেননি টেস্ট ইতিহাসের সর্ব কনিষ্ট সেঞ্চুরিয়ান। বগুড়ার শহীদ চান্দু ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সেন্ট্রাল জোনের বিপক্ষে আজ ব্যাট করতে নেমেছিলেন চার নম্বরে। কিন্তু ৬টি বল মোকাবেলা করলেও কোনো রান করতে পারেননি তিনি। শূন্য রানেই আউট হয়ে যেতে হয়েছে শহিদুল ইসলামের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে।

প্রথম ইনিংসে ফরহাদ রেজার অসাধারণ বোলিংয়ের সামনে সেন্ট্রাল জোন অলআউট হয়েছিল মাত্র ১১৮ রানে। ফরহাদ রেজা ১৬ ওভারে ৩২ রান দিয়ে একাই নিয়েছিলেন ৭ উইকেট। জবাব দিতে নেমে ১৮৬ রানে অলআউট হয় আশরাফুলের ইস্ট জোন। সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন মাহমুদুল হাসান। ৩৪ রান করেন মাহিদুল ইসলাম আকন এবং ২৭ রান করেন ফরহাদ রেজা।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ৩১ রান তুলতেই এক উইকেট হারিয়ে বসে সেন্ট্রাল জোন। এ রিপোর্ট লেখার সময় সেন্ট্রাল জোনের রান ১ উইকেট হারিয়ে ৬৭। ২০ রানে পিনাক ঘোষ এবং ২৮ রানে ব্যাট করছেন আবদুল মজিদ।

Loading...