শিল্প প্রতিষ্ঠানের কোটি কোটি টাকার ক্ষতি

শিল্প প্রতিষ্ঠানের কোটি কোটি টাকার ক্ষতি

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শাহবাজপুর তিতাস নদীর ব্রীজ ভেঙ্গে পড়ায় সিলেটের সঙ্গে সারা দেশের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। ৪ দিন অতিবাহিত হলেও ব্রীজটি মেরামত করে সরাসরি যোগাযোগ চালু করা সম্ভব হয়নি। তবে ছোটখাট যানবাহন গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে স্বল্প পরিসরে ঝুকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলাচল করছে।

এদিকে বিকল্প হিসাবে চান্দুরা আখাউড়া হয়ে ঢাকা যাচেছ অনেক পরিবহন। আবার কিছু পরিবহন মাধবপুর উপজেলার রতনপুর ছাতিয়াইন- নাসিরনগর হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিশ^রোড হয়ে মহাসড়ক দিয়ে ঢাকা যাচেছ। রতনপুর-ছাতিয়াইন- নাসিরনগর রাস্তাটিতে গত ৪ দিন যাবত ভারি যানবাহন চলার কারণে রাস্তার অনেক জায়গা ভেঙ্গে খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। এতে করে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় ব্যয় হচেছ।

এদিকে, সিলেটের সঙ্গে ঢাকার বাস, ট্রাক, সরাসরি চলাচল বন্ধ থাকায় বিশেষ করে বিপাকে পড়েছে শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলো। হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলাসহ জেলায় প্রায় শতাধিক নামিদামি শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। ৪ দিন যাবত সিলেটের সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় জেলায় গড়ে উঠা শিল্প প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত পণ্য ডেলিভারি ও কাঁচামাল আমদানি প্রায় বন্ধ রয়েছে। কাঁচামাল আসতে না পারায় শিল্প প্রতিষ্ঠানের উৎপাদন হ্রাস পেয়েছে। এছাড়া, বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের নির্মাণ সামগ্রী বালু,রড, সিমেন্ট আসতে না পারায় নির্মাণ কাজ আটকে গেছে। 


মাধবপুর উপজেলার বেজুড়া এলাকায় অবস্থিত যমুনা ইন্ড্রাষ্ট্রিয়াল পার্কের জিএম (কনস্ট্রাকশন) আবুল হোসেন জানান, ৪ দিন যাবত ঢাকার সঙ্গে সিলেটের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় কোম্পানির কাঁচামাল নিয়ে গাড়ি কোম্পানিতে প্রবেশ করতে পারছে না। নির্মাণ সামগ্রী বালু,রড ও সিমেন্ট না আসাতে ফ্যাক্টরির নির্মাণ কাজ আটকে আছে। এদিকে, ফ্যাক্টরির কাজের বালু আশুগঞ্জ থেকে আনতে হয়। শাহবাজপুর এলাকার ব্রীজ ভাঙ্গার কারণে বালুবাহী অনেকগুলো গাড়ী রাস্তায় আটকা পড়েছে।

কয়েকজন বিদেশী বিশেষজ্ঞ কোম্পানিতে আসার কথা ছিল। কিন্তু সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় তারা আসতে পারেননি। মাঝ পথ থেকে তারা ফিরে গেছেন। এতে করে কোম্পানীর কোটি টাকা লোকসানের মুখে পড়েছে। মাধবপুর উপজেলার রতনপুর এলাকায় নির্মিত এসএম স্পিনিং মিলের জিএম আবুল বাশার জানান,সরাসরি ঢাকার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় বাণিজ্যিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এলসির এগিনেস্টে ডেলিভারি দেওয়া স্ম্ভব হচেছ না।

ডেলিভারি সময়মত না হওয়াতে বায়ার’রা ক্ষতিপূরণ দাবি করছে। এছাড়া, চট্রগ্রাম বন্দরে অনেক কোম্পানির এলসির মালামাল আটকা পড়েছে। এগুলো সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন না হওয়া পর্যন্ত আনা যাচেছ না। সরাসরি ঢাকার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ না থাকায় কোম্পানিগুলো অনেক লোকসানের মুখে পড়েছে। সরাসরি যান চলাচল বন্ধ থাকায় অনেক যাত্রী ঢাকা ও সিলেট যেতে ট্রেন ব্যবহার করছেন। অপরদিকে, মাধবপুর থেকে চান্দুরা ও শাহবাজপুর নৌ যোগাযোগ চালু হয়েছে।

অনেক যাত্রী মাধবপুর সদর থেকে সোনাই নদী দিয়ে নৌ পথে শাহবাজপুর ব্রীজ পার দিয়ে ঢাকার গাড়িতে উঠছেন। সিলেটের সঙ্গে ঢাকার সরাসরি সড়ক যোগাযোগ না থাকার সুযোগে যে সকল যাত্রী অতি জরুরী কাজে বিকল্প পথে ঢাকা যাচ্ছেন তাদের কাছে থেকে পরিবহন শ্রমিকরা অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সরাইলের শাহবাজপুরে তিতাস নদীর ওপর সেতুটির চতুর্থ স্পেনের রেলিং ভেঙ্গে পড়ে। এরপর থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগ সব ধরনের ভারি ও মাঝারি যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। মাধবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ মোঃ শাহজাহান জানান, সরাসরি সিলেটের সঙ্গে ঢাকার সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।

জনদুর্ভোগ কিছুটা লাঘবে তিনি ঢাকা-সিলেট রেলপথে দৈনিক দু’টি ট্রেন চালুর দাবি জানান। খাটিহাতি হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হোসেন সরকার জানান, সীমিত আকারে ছোট যানগুলো ব্রীজ দিয়ে চলাচল করছে। ব্রীজ দিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক হতে আরো এক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে।

Comments

comments