কবি মৌ হালদারের একান্ত ভালোবাসার কবিতা (তিনটি)

ছবিঃ মোস্তাফিজ অঙ্গন

কবি মৌ হালদারের একান্ত ভালোবাসার কবিতা (তিনটি)

এক
অভিমানে আমার নীল আকাশ কালো হয়ে ওঠে
নিভে যায় শেষ তারাটা সারাদিনের ক্লান্তি ঝুলিতে ভরে
তুমি বাড়ি ফেরো, অবসন্ন, নির্জীব।
আমার ঘরে ফেরার তাড়া থাকে না,
আমি ঘরের ভেতর ঘর খুঁজে বেড়াই।
তুমি টোকা দিলেই যেন ঝরে পড়বে ফুল জীবন্ত, সজীব।
আমি প্রতীক্ষাতে থাকি আমার দরজায় কড়া নাড়ার
অভিমানের অগ্নি ভস্মীভূত করে আমার শুভ্রতা
আমি জ্বলন্ত অগ্নি হয়ে যাই,
পুড়তে পুড়তে ছাই হয়ে যাই।
তোমার সময় হয় না আমার দরজায় টোকা দেবার
আমি ছাইগুলো তাই শেষে বাতাসে উড়াতে যাই।

 

দুই
ধুম্রজালে আড়াল করি সুখ অস্তিত্ব ক্লান্ত হয় খুঁজে খুঁজে প্রিয় মুখ।
পেন্সিল ভেঙে দু টুকরো করি কাগজে লেখা হয় না কিছু,
মৃত কিছু স্মৃতি ঘুরতে থাকে পিছু পিছু।
জানালার বাইরে একটা নিকষ কালো আকাশ একাই নিচ্ছে নিঃশ্বাস,
কুয়াশায় ভিজতে থাকা ল্যাম্পপোস্ট ইশারা দেয় কিছু বলতে চায়,
আমি জানি বন্ধু নিঃসঙ্গতার ভাষা একটাই।
তিন
ধুলো পড়ে যাচ্ছে ডায়রীতে,
ধুলো জমছে গিটারের তারে,
বারান্দার গ্রীলে, ধুলো পড়ে ধূসর হচ্ছে ছবি, ফেলে আসা স্মৃতি।
স্মৃতিতে কি এখনো টাটকা তাজা তুমি?
একদিন তোমাতেও ধুলো পড়বে, ধূসর হবে রং অার আমি!
আমি কেবল শূন্যতার যোগফল।

Comments

comments